পিডিপির একাধিক মৃত ব্যক্তির নামের

স্টাফ রিপোর্টার ঃ পিডিপির স্ব-ঘোষিত মহাসচিব প্রিন্সিপাল এম এ হোসেন নির্বাচন কমিশনে একাধিক মৃত ব্যক্তির নামের কমিটি জমা দিয়েছে বলে জানা গেছে। দেখা যায়, একটি বাসার ডাইনিং রুমে প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দল পিডিপির ১৭৩ জনের স্বাক্ষরিত গত ৭ জুলাই ২০১৭ইং সালে বর্ধিত সভার উপস্থিত নেতৃবৃন্দের নাম ও স্বাক্ষর রয়েছে।

এ বর্ধিত সভায় স্বাক্ষরিত একাধিক মৃত ব্যক্তির নাম রয়েছে। এছাড়াও গত ৯ ফেব্র“য়ারী ২০১৭ইং তারিখে নির্বাচিত উপদেষ্টা কমিটির ৩ ও ৬ নং ক্রমিকের ২জন মৃত ব্যক্তির নাম উল্লেখ করে কমিটি জমা দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনে।

আবার অন্যদিকে দেখা যায়, বিএনপির শ্রমিক নেতা মোশারফ হোসেন খান গত ২৫ ডিসেম্বর ২০১৬ইং তারিখে গঠনতন্ত্র সংশোধন, উপকমিটি ও জাতীয় স্থায়ী কমিটির সভা সম্বলিত কমিটিতে স্বাক্ষর করেছেন।

দেখা যায়, মোঃ মোশারফ হোসেন খানের বিভিন্ন কাগজপত্রে একই নামে বিভিন্ন রকম স্বাক্ষর করা কমিটি নির্বাচন কমিশনে জমা দিয়েছেন। এই জমা দেওয়া কমিটির মাধ্যমে প্রিন্সিপাল এম এ হোসেন পিডিপি’র মামলা চলমান অবস্থায় তার নিজ নাম নির্বাচন কমিশনে পিডিপি’র মহাসচিব পদে ওয়েবসাইটে তালিকাভূক্ত করেছেন।

আবার এই কমিটির জাল-জালিয়াতি কাগজপত্র মামলায় জেতার উদ্দেশ্যে মহামান্য হাইকোর্টে জমা করেছেন।

এ ব্যাপারে সাক্ষাৎ করে এ প্রতিবেদক প্রিন্সিপাল এম এ হোসেনের সাথে সাক্ষাৎ করে জিজ্ঞাসা করলে তিনি কোনো উত্তর দিতে রাজী হননি। জানা যায়, গত ২০১৭ সালে হাইকোর্টের ১৭নং কোর্টে পিডিপি’র মহাসচিব এহসানুল হক সেলিম নির্বাচন কমিশন ও পিডিপি-র একাংশকে বিবাদী করে একটি রিটপিটিশন মামলা দায়ের করেন, যার মামলা নং ১২৭৩৫/২০১৭। মামলাটির শুনানী আনতে বাদীর পক্ষে রুল হয়।

পরবর্তীতে হাইকোর্টের ৬নং আদালতে মে মাস থেকে ৩ বারই শুনানীর জন্য দিন ধার্য্য ছিল, এ বিষয়ে দলের কয়েকজন নেতা বলেন, অজ্ঞাত কারণে বাদীর আইনজীবী ড. ইনুস আলী আকন্দ আদালতে হাজির না থাকায় দীর্ঘ দিন মামলাটির শুনানী হয়নি। বাদী নিজে মামলাটি পুনরায় ৬নং কোর্টে এসটিপি আইটেম নং ৭০ ক্রমিকে লিস্টে আনে। বুধবার বিচারপতি সেখ হাসান আরিফ ও রাজিক আল জলিল এর বেঞ্চে বাদীর পক্ষে পিডিপি’র সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মাকছুদ আলম চৌধুরী শুনানী করেন।

উক্ত শুনানী শেষে মহামান্য বিচারক ২৫ অক্টোবর ২০১৮ইং শুনানীর দিন ধার্য্য করেন। ২৫ অক্টোবর বাদীপক্ষের আইনজীবি ড. ইনুস আলী আকন্দ উপস্থিত না হওয়ায় বিচারক ২৮ অক্টোবর মামলাটির শুনানীর জন্য দিন ধার্য্য করেন। বাদী পিডিপি’র মহাসচিব এহসানুল হক সেলিম সাহেব জানান, এ আইনজীবির বিরুদ্ধে আমি গত ৯ জানুয়ারী ২০১৮ তারিখে বার কাউন্সিলে লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছি।

জনমনে প্রশ্ন জেগেছে বাঘ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন কারা করবে। জনাব মাকছুদ আলম চৌধুরীকে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, আদালতের ঊর্ধ্বে কেউ নয়, আদালত যেই সিদ্ধান্ত দিবেন আমরা তাই মেনে নিব। আমরা আদালতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।