আশুলিয়ায় পানির ট্যাংকে পড়ে মা ও ছেলে নিহত

জাহিন সিংহ, সাভার প্রতিনিধি: সাভারের আশুলিয়ায় একটি বাড়ির পানির ট্যাংকির দেয়াল ধসে পোশাক শ্রমিক নারী ও তার ৭ বছরের ছেলে নিহত হয়েছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল মরদেহ দুইটি উদ্ধার করে। এই ঘটনায় আহত আরও একজনকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার ভোরে আশুলিয়ার নরসিংহপুর বাংলাবাজার এলাকায় নরু মোহাম্মদ পালোয়ানের বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত সেলিমা বেগম শিল্পাঞ্চলের নরসিংহপুর এলাকার হা-মীম গ্রপের পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। ছেলে সিয়াম হোসেন ক্লাস ওয়ানে লেখাপড়া করতো। তাদের গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা থানার কামালিয়াপাড়া এলাকায়।

প্রতিবেশীরা জানান, ভোরে বিকট শব্দে ঘুম ভেঙ্গে যায়। একটু পরেই দেখেন ঘরে ভিতরে উপচে পানি ঢুকছে। দৌড়ে বাইরে এসে দেখেন সেলিনা বেগমের ঘরে উপরে দেয়াল ধসে পড়েছে। দ্রুত টুটুল নামে একজনকে উদ্ধার করতে পেরেছে। কিন্তু মা ও ছেলে ছেলে বের করতে পারেনি।

আশুলিয়া ডিইপিজেডের ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা হুমায়ন কবির জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থল থেকে দেয়ালের নিচে চাপা পড়া মা ও ছেলে মৃতদেহ উদ্ধার করে। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে র্দুবল ভাবে তৈরি কারনে পানির ট্যাকিং দেয়াল ধসে পড়ে। আর ধসে নেীচের টিনের চাল ভেঙ্গে সরাসরি ঘুমন্ত মা ও ছেলের উপর পড়ে।

আশুলিয়া থানার এস আই আবুল কালাম আজাদ জানান, টিনশেড আধাপাকা কক্ষের সাথে থাকা পানির ট্যাংকির দেয়াল ভোর রাতের দিকে হঠাৎ করে একটি কক্ষের উপর ধসে পড়ে। এতে করে ঘটনাস্থলেই দেয়াল চাপা পড়ে মারা যান মা সেলিনা বেগমসহ ৭ বছরের ছেলে সিয়াম হোসেন। আহত হন টুটুল নামে নিহত ওই নারীর ভাই। তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় নারী ও শিশু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।