গুলিতে মারা গেছেন সৌদি যুবরাজ?

সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানকে দীর্ঘদিন ধরে জনসমক্ষে দেখা না যাওয়ায় ইরানের বেশ কিছু গণমাধ্যম বিস্ময় প্রকাশ করে বলেছে, গত মাসে এক অভ্যুত্থান চেষ্টার সময় দেশটির প্রভাবশালী এই যুবরাজ কি তাহলে মারা গেছেন!

ইরানের ইংরেজি ভাষার দৈনিক কায়হানের বরাত দিয়ে রুশ সংবাদ সংস্থা স্পুটনিক এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। কায়হান বলছে, আরবের কোনো একটি দেশের (দেশের নাম প্রকাশ করা হয়নি) জ্যেষ্ঠ সরকারি কর্মকর্তাদের কাছে এক প্রতিবেদন পাঠিয়েছে একটি গোয়েন্দা সংস্থা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রিয়াদের রাজ প্রাসাদে গত ২১ এপ্রিলের হামলায় সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের শরীরে দুটি বুলেট আঘাত হানে। এ ঘটনার পর থেকে তাকে জনসমক্ষে দেখা যায়নি, সম্ভবত তিনি মারা গেছেন।

এদিকে, ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল প্রেস টিভি বলছে, ওইদিনের পর থেকে এখন পর্যন্ত সৌদি কর্তৃপক্ষ যুবরাজের কোনো ছবি অথবা ভিডিও প্রকাশ করেনি। এমনকি এপ্রিলের শেষের দিকে মার্কিন নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পে তার প্রথম সফরে রিয়াদে গেলেও যুবরাজকে সেসময় ক্যামেরার সামনে দেখা যায়নি।

ইরানি সংবাদ সংস্থা ফারস বলছে, বিন সালমান এমন একজন মানুষ যাকে প্রতিনিয়ত গণমাধ্যমে দেখা যায়। কিন্তু রিয়াদের রাজপ্রাসাদে গোলাগুলির পর ২৭ দিন ধরে গণমাধ্যমে অনুপস্থিতির ঘটনায় সৌদি যুবরাজ সুস্থ্য আছেন কিনা সেবিষয়ে প্রশ্ন তুলেছে।

এর আগে, গত ২১ এপ্রিল বেশ কিছু সংবাদ সংস্থা জানায়, সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদের রাজপ্রাসাদে ব্যাপক গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। সম্ভাব্য অভ্যুত্থান চেষ্টা থেকে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে সেসময় গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে।

ওইদিন রাজপ্রাসাদের কাছে একটি ড্রোন চলে আসায় নিরাপত্তারক্ষীরা সেটি লক্ষ্য করে গুলি চালায়। সৌদি কর্তৃপক্ষের দাবি বিনা অনুমতিতে ড্রোনটি রাজপ্রাসাদ চত্বরে উড়ছিল। স্থানীয় বেশ কিছু গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, গোলাগুলির ওই ঘটনার সময় রাজপ্রাসাদ থেকে বাদশাহ সালমানকে কাছের একটি সামরিক স্থাপনায় সরিয়ে নেয়া হয়।