চবিতে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংর্ঘষে আহত ৫

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) খেলা দেখাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের মধ্যে সংর্ঘষ হয়। সংর্ঘষে পাঁচজন আহত হন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সোহরাওয়ার্দী হলের সামনে বুধবার দফায় দফায় এ মারামারির ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- ইসলামের ইতিহাস বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের আহাদ, বাংলা বিভাগের রুপক, সংস্কৃত বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের প্রান্ত। এরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএফসি গ্রুপের কর্মী। অন্যদিকে সংস্কৃত বিভাগের ২০১৫- ১৬ শিক্ষাবর্ষের নয়ন চন্দ্র মোদক, আরবি বিভাগের ২০১৬- ১৭ শিক্ষাবর্ষের ইমরান ।

তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজয় গ্রুপের কর্মী বলে জানা যায়। আহত সবাইকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

জানা যায়, বুধবার সকালে একই সময়ে আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের খেলা চলছিল। সেই সময় বিজয় গ্রুপের কয়েকজন সমর্থকদের সাথে সিএফসি গ্রুপের কর্মীদের টিভির রিমোট নিয়ে কথাকাটাকাটি হয়। তখন বিষয়টি সমাধান হলেও দুপুরে সিএফসি গ্রুপের রুপক ও আহাদ সোহরাওয়ার্দী হলের ক্যাফেটেরিয়াতে খাবার খাওয়ার জন্য গেলে বিজয় গ্রুপের সমর্থকরা তাদেরকে মারধর করে।

এসময় আহাত, রুপক ও নয়ন আহত হন। বিষয়টি সমাধনের জন্য দুই গ্রুপের সিনিয়র নেতারা বিকেলে হলের গেস্ট রুমে বসলে সিএফসি ও বিজয় গ্রুপের মধ্যে ফের মারামারি হয়। এসময় ইমরান ও প্রান্ত আহত হন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের স্থগিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক এইচ এম ফজলে রাব্বি সুজন বলেন, কারো ব্যক্তিগত সমস্যার দায়ভার আমরা নিব না। তবে এ বিষয়ে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী বলেন, সকালে খেলা দেখাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের কয়েকজন কর্মীর মধ্যে মারামারি হয়েছে। এ ঘটনায় কয়েকজন আহত হয়েছে । কারা এ ঘটনায় জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।