অভিনয় ছাড়ছেন মিশা সওদাগর!

বর্তমানে ঢাকাই চলচ্চিত্রের অন্যতম খলনায়ক মিশা সওদাগর অভিনয় ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। সম্প্রতি গণমাধ্যমে তার বক্তব্য তুলে ধরে এমনটিই জানানো হয়েছে। শিল্পী সমিতির বর্তমান সভাপতি গণমাধ্যমকে জানান, ঈদের ছুটিতে জীবন ও কর্ম নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তটি হচ্ছে- অভিনয় ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত।

তবে কোনো রাগ কিংবা অভিমান থেকে নয়, নিজেকে সময় দেয়ার জন্যই তিনি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মিশা সওদাগর। অভিনয় ছাড়ার কারণ হিসেবে মিশা সওদাগর বলেন, চলচ্চিত্রের খলনায়ক হিসেবে চরিত্র ফুটিয়ে তুলতে যে পরিমাণ পরিশ্রম করতে হয় তা এখন আর পারছি না। বয়সের কারণে মারপিটসহ অন্যান্য দৃশ্যে অভিনয় কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ছে বলেই অভিনয় থেকে সরে যাচ্ছি।

হাতে থাকা কাজের বিষয়ে মিশা বলেন, দশটার মতো ছবি হাতে আছে। এগুলোর কিছুর কাজ শেষ, অল্পকিছুর শুটিং ও ডাবিং বাকি রয়েছে। এগুলো শেষ করতে এক থেকে দেড় বছর সময় লাগতে পারে। তবে নির্মাতা ও প্রযোজকদের বলেছি এক বছরের মধ্যে ছবির নির্মাণ কাজ শেষ করার জন্য।

এর মধ্যে নতুন কোনো ছবিতে আর চুক্তিবদ্ধ হচ্ছেন না বলেও জানান তিনি। অবশ্য অভিনয় ছেড়ে দিলেও চলচ্চিত্র ছাড়ছেন না মিশা। পরিচালনায় আসবে কিনা তা এখনো বলতে পারছেন না তিনি। তবে অবসরের পর বাংলা চলচ্চিত্র ও অভিনয়ের মান বাড়াতে কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন তিনি।

এদিকে মিশা সওদাগরের সিনেমা থেকে অবসরের বিষয়ে নানা মত রয়েছে। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা বলছেন, তার হাতে অনেকগুলো সিনেমার কাজ রয়েছে। এগুলো শেষ করতে তার অন্তত দুই বছরের মতো সময় লাগবে। এর মধ্যে আবার শাকিব খানের সঙ্গে তার একটি সিনেমার সাইনিংয়ের কথা রয়েছে। এতসব কাজ ছেড়ে হঠাৎ করেই তো তিনি চলে যেতে পারবেন না।

প্রশ্ন উঠেছে, তিনি যদি সিনেমা ছাড়তে এত বেশি সময় নেন তাহলে এখনই তার ঘোষণা দেয়ার কি হলো? অনেকেই অবশ্য বিষয়টাকে ব্যক্তিগত প্রচারণা হিসেবেও দেখছেন। তবে মিশার আসল অবস্থান জানতে ভক্ত-দর্শকদের আরও কিছুদিন অপেক্ষা ছাড়া গতি নেই।