হাইটেক শিল্পের চেয়ে ক্ষুদ্র-মাঝারি শিল্পের প্রসার জরুরি : আমু

 

 

 

 

 

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে দেশে হাইটেক শিল্পের চেয়ে শ্রমঘন ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের প্রসার জরুরি। এ লক্ষ্যে দেশব্যাপী একশ’টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হচ্ছে। বুধবার বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্রের (বিটাক) টুল ইনস্টিটিউট ভবনের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি।

 

 

 

 

রাজধানীর তেজগাঁওয়ে বিটাক প্রাঙ্গণে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিটাকের মহাপরিচালক ড. দিলীপ কুমার শর্মা এনডিসি’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সুষেণ চন্দ্র দাস, প্রকল্প পরিচালক ড. সৈয়দ মো. ইহসানুল করিম বক্তব্য রাখেন। শিল্পমন্ত্রী বলেন, ম্যানুফ্যাকচারিং হাল্কা প্রকৌশল শিল্প প্রসারের মাধ্যমে দেশে ব্যাপকহারে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা সম্ভব।

 

 

 

 

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় এ লক্ষ্যে বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা হাল্কা প্রকৌশল শিল্পের জন্য ঢাকার কেরানীগঞ্জে একটি পরিকল্পিত শিল্পনগরি গড়ে তোলা হচ্ছে। ক্ষতিকর কেমিক্যাল, প্লাস্টিক ও মুদ্রণ শিল্পের জন্যও পৃথক শিল্পনগরি গড়ে তোলার কাজ চলছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

 

 

 

 

তিনি বলেন, শিল্পায়নের লক্ষ্য অর্জনে দেশে বিপুল পরিমাণে কারিগরি জ্ঞানসম্পন্ন জনবল প্রয়োজন। শিল্পোন্নত দেশগুলোর শতকরা প্রায় ৭০ ভাগ শিক্ষার্থী যেখানে কারিগরি শিক্ষায় প্রশিক্ষিত হচ্ছে, সেখানে বাংলাদেশে এর পরিমাণ এখনও মাত্র ১০ শতাংশ। বাংলাদেশের প্রায় এক কোটি লোক বিদেশে চাকরি করলেও দক্ষতার অভাবে তারা ন্যায্য মজুরি থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। দেশব্যাপী যে একশ’টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হচ্ছে, সেগুলো সচল রাখতে ব্যাপকহারে কারিগরি জ্ঞানসম্পন্ন দক্ষ জনবল তৈরির ওপর গুরুত্বারোপ করেন আমু।